আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে একদম কম খরচে

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে একদম কম খরচে অনেকেই খুঁজছেন। কারণ রাবিতে ভর্তি হওয়ার জন্য দেশের অনেক এলাকা থেকেই শিক্ষার্থীরা রাজশাহীতে আসেন। তাদের একদম কম খরচে আবাসিক হোটেল প্রয়োজন পড়ে। 

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে

রাজশাহী শহরে বর্তমানে অনেক ধরনের আবাসিক হোটেল খুঁজে পাওয়া যায়। কিন্তু অন্য শহর থেকে এসে সহজেই মোটেল বুকিং দেওয়া বা কোন হোটেলটি আপনার থাকার জন্য সুব্যবস্থা সম্পন্ন সে ব্যাপারে ধারণা থাকে না।

পেজ সূচিপত্রঃ আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে 

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে আসার জন্য অনেকেই অনেক হোটেল খুঁজে থাকেন। মানানসই এবং খরচ বহন করা যাবে এমন হোটেল অনেকই আছে। তবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে কোন কোন হোটেল রয়েছে তা অনেকেই জানেন না। 

মূলত পড়াশোনার জন্য বা ভর্তি ইচ্ছুক পরীক্ষার্থীরা কম খরচে অনেক হোটেলের খোঁজখবর নিয়ে থাকেন। তাদের জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে হোটেল হলে যাতায়াতের সুবিধা বেশি হয়। তাই আবাসিক হোটেলের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এর পাশে কি কি রয়েছে তার নিচে আলোচনা করা হলো। 

আরএইচ স্টুডেন্ট হোস্টেল

অনেক সময় দেখা যায় বিভিন্ন শহর থেকে ছাত্রছাত্রীরা আসেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পড়াশোনার জন্য। এইসব ছাত্রছাত্রীদের জন্য রাজশাহীতে বেশ কয়েক ধরনের হোস্টেলের সুবিধা রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশে হোটেলগুলো বেশ অনেকটাই ছাড় দিয়ে আসছে ছাত্রছাত্রীদের জন্য। এরমধ্যে আর এইচ স্টুডেন্ট হোস্টেল অন্যতম।  

এই হোস্টেলে বছরের শুরুতেই ৪০% ছাড় চলে আসছে। তবে এখানে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা ও রয়েছে। একটি ঘর যদি ভাড়া নেন অবশ্যই আপনি এটাস্ট বাথরুম ও ব্যালকনি পেয়ে যাবেন। ব্যালকনি থেকে রাজশাহী শহরের সুন্দর ভিউ চোখে পড়বে।

সুযোগ- সুবিধার মধ্যে আরও রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণ গিজারের ব্যবস্থা। শীতকালে গরম পানির ব্যবস্থা থাকবে। ব্রেকফাস্ট এর সুব্যবস্থা থাকবে যা একদমই ফ্রি। এছাড়াও গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। 

নুপুর লেডিস হোস্টেল

শুধুমাত্র মেয়েরাই এই হোস্টেলের সম্পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করে থাকতে পারবেন। যদি রাজশাহী শহরে পরিচিত কেউ না থাকেন এবং শুধু মেয়েরা আসেন তাহলে তারা কোন চিন্তা না করেই এই লেডিস হোস্টেলে উঠতে পারেন। সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। তাছাড়া এর অবস্থানও বিশ্ববিদ্যালয়ের খুব কাছেই। তাই মেয়েদের জন্য এটা চাহিদা পূর্ণ। 

এখানেও বড় রুমের সাথে ব্যালকনি সুবিধা রয়েছে। আর হোটেল কর্তৃপক্ষ মেয়েদের সুবিধার ব্যাপারে সদা নিশ্চয়তা প্রদান করে থাকেন। এছাড়াও গরম পানির ব্যবস্থা গাড়ি পার্কিং ও ব্রেকফাস্ট এবং টিভির সুবিধা সহ আরো কিছু সুবিধা রয়েছে। 

নাইস হোটেল

বলা হয়ে থাকে এটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের খুব কাছে এবং এই হোটেলটি দেখতে অনেক সুন্দর একদম রাজকীয়। কিন্তু খুব কম ভাড়ার মধ্যেই আপনি এই হোটেলে উঠতে পারবেন। রাজকীয় হওয়ার কারণে হোটেলের রুমগুলো অনেক বড় বড় ও প্রশস্ততা দেখা দেয়। 

প্রত্যেকটি রুমের সাথেই বড় বড় বারান্দা এবং রুমের সাথে মানানসই টয়লেটের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া বছরের প্রায় অনেক সময়ই এরা অনেক অফার বা ছাড় দিয়ে থাকে। এমনকি এখানে গাড়ি পার্কিংয়ের সুবিধা বা গিজারে সুবিধা সব ধরনের নিরাপত্তা ও ব্রেকফাস্ট এর ব্যবস্থা রয়েছে। 

স্বপ্নপুরী হোটেল

সকলের জন্য স্বপ্নপুরী হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে খুব কাছে এবং শহরের প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত। মাঝে মাঝে এই হোটেলে অনেক রকম ছাড় দিয়ে থাকে। এই হোটেলেও রয়েছে বড় বড় রুম ব্যবস্থা ও টয়লেট এবং বারান্দার সুবিধা। 

সম্পূর্ণ নিরাপত্তা আপনাকে দিতে পারবে বলে তারা নিশ্চিত করেছেন। এই হোটেলটিও অনেক সুন্দর এবং রাজকীয় ডিজাইন সমৃদ্ধ। এখানেও গিজারের সুবিধা, গাড়ি পার্কিং এর ব্যবস্থা, নিরাপত্তা, সকালের ব্রেকফাস্ট, টিভি ও এয়ারকন্ডিশনের সুব্যবস্থা রয়েছে।  

হোটেল ডালাস রাজশাহী

হোটেল ডালাস ইন্টারন্যাশনাল হোটেল। রাজশাহীর ঐতিহাসিক স্থাপত্যের নিদর্শন থাকায় এই হোটেলটি অনেক রাজকীয়। এই হোটেলে গুনগত মান অন্য হোটেলের থেকে আরো ভালো তবে দামে কম। পরিবারসহ থাকার ব্যবস্থা রাজশাহীতে কম সময়ের জন্য পড়াশোনা বিষয়ক বা কোন ছুটির সময়ে ঘুরতে আসার জন্য এই হোটেলটি সাশ্রয়ী হবে।

আরও পড়ুনঃ ২০২৪ সালের বাংলা ইংরেজি ক্যালেন্ডার ও সরকারি ছুটি

যদি আপনি উন্নত হোটেলে চিন্তা করেন তবে এর মধ্যে ডালাস এ সব ধরনের সুযোগ সুবিধা বেশি ও নিরাপত্তাও বেশি। ডালাসের রুমগুলো অনেক বড় বড় এবং সাথে প্রশস্ত বাথরুম ও আলাদা বেলকনির সুব্যবস্থা রয়েছে। এখানেও আপনি গরম পানির গিজার, গাড়ি পার্কিং, ব্রেকফাস্ট, এয়ার কন্ডিশন, এলইডি টিভি সহ সব ধরনের সুযোগ-সুবিধায় পেয়ে থাকবেন।

পদ্মা আবাসিক হোটেল

পদ্মা নদীর পাশে যেহেতু রাজশাহী তাই এর নাম অনুসারে পদ্মা আবাসিক হোটেল এটি সুন্দর ছিমছাম হোটেল। যারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির জন্য বা শিক্ষার্থী হিসেবে রাজশাহীতে আসতে চান তাদের জন্য এই হোটেলটি খুবই উপযোগী। এখানেও প্রত্যেকটি রুমের সাথে বেলকনি এবং বাথরুমের সুব্যবস্থা রয়েছে। 

যেহেতু হোটেলটি শিক্ষার্থীদের সুব্যবস্থার জন্য তৈরি করা হয়েছে তাই একদম কম খরচে আবাসিক হোস্টেলের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। এছাড়াও সুযোগ-সুবিধার মধ্যে কমন সুযোগ সুবিধা গুলো হচ্ছে গরম পানির ব্যবস্থা, গাড়ি পার্কিংয়ের সুব্যবস্থা, ফ্রি ব্রেকফাস্ট, টিভি ও এয়ারকন্ডিশনের সুবিধা। 

ইসলামি আবাসিক হোটেল

ছেলে মেয়ে উভয়ের জন্যই ইসলামি আবাসিক হোটেল খুবই নিরাপত্তার সাথে আপনাকে রুম সার্ভিস দিয়ে থাকবে। সব ধরনের সুযোগ সুবিধা পাবেন। সব হোটেলের মতো এই হোটেলেও বড় রুম ও মানানসই বাথরুম এবং বেলকনির ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়াও গিজার, গাড়ি পার্কিং, ফ্রি ব্রেকফাস্ট, টিভি ও এয়ারকন্ডিশনের সুবিধা পাবেন। 

হোটেল সেঞ্চুরি

রাজকীয় হোটেলের মধ্যে আরো একটি হোটেল হচ্ছে হোটেল সেঞ্চুরি। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে এবং রাজশাহীর প্রাণকেন্দ্রে এই হোটেলটি অবস্থিত। যেহেতু অনেক রাজকীয় একটি হোটেল তাই আপনি এখানে বিশাল বড় সাইজে রুম এবং ও তার সাথে বাথরুম এবং বেলকনির ব্যবস্থা আলাদা করেই পাবেন। এছাড়াও আপনি কিছু সুবিধা যেমন ফ্রি ব্রেকফাস্ট, গিজারের ব্যবস্থা, পার্কিং এর সুবিধা, নিরাপত্তার সুবিধা, টিভি ও এয়ারকন্ডিশনের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। 

একদম কম খরচে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে আবাসিক হোটেল বুকিং

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে একদম কম খরচে অনেকেই খুঁজছেন। কারণ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার জন্য বা ভর্তি ইচ্ছুক ছাত্রছাত্রীরা পরীক্ষা দেওয়ার জন্য বা রাজশাহীতে কোন কাজের কারণে অনেকেই আসতে চান। 

একদম কম খরচে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে আবাসিক হোটেল বুকিং

কিন্তু এই সময় পর্যাপ্ত থাকার জায়গার অভাবের কারণে ঠিক বুঝতে পারেন না কোন ব্যবস্থা করা যায় কিনা। নিচে একদম কম খরচে মোটেল সুবিধা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে আমরা যেগুলো দেখতে পাই বুকিং খরচ বিষয়ে আলোচনা করা হলো।  

আরএইচ স্টুডেন্ট হোস্টেল

আর এইচ স্টুডেন্ট হোটেলের ভাড়া তুলনামূলক অনেক কম। যেহেতু স্টুডেন্টদের কথা মাথায় রেখে এই হোটেল ব্যবস্থা তাই এর রেগুলার রুম ভাড়া ২০০০ থেকে ২২০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

নুপুর লেডিস হোস্টেল

আবাসিক হোটেলের তথ্য জানতে আমরা এখন নুপুর লেডিস হোস্টেল সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্য খরচ এর বিষয়ে জানতে পারবো। নুপুর লেডিস হোস্টেলের রুম ভাড়া এবং কম টাকায় হোটেল সুবিধা পাওয়া সম্ভব। কারণ এখানে বুকিং মানি ১৮০০ থেকে ২০০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে। এছাড়াও বছরের অনেক সময় অনেক ডিসকাউন্ট এর ব্যবস্থা রয়েছে।

নাইস হোটেল

নাইস হোটেলের আবাসন ব্যবস্থা অনেক প্রাণবন্তর। রাতে আবাসিক হোটেলে থাকার সুব্যবস্থা ও রুম ভাড়া ছাড়াও এর চারপাশের পরিবেশ অনেক সুন্দর। এছাড়া প্রতিবছরই অনেক সময় অফারের সুবিধা রয়েছে। অতি মনোরম পরিবেশে অবস্থিত হওয়ায় প্রতি রুম ভাড়া ২৩০০ থেকে ২৪০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে। তবে অফার ৩০% থেকে ৫০% পাওয়া যায়।

স্বপ্নপুরী হোটেল

পরিবারসহ থাকার ব্যবস্থা রাজশাহীতে খুঁজতে হলে অবশ্যই স্বপ্নপুরী হোটেলে আসতে পারেন। অসামাজিক কোন ধরনের কাজের রিপোর্ট নেই এছাড়া সম্পূর্ণ নিরাপত্তা সহ এই হোটেলের থাকা সুব্যবস্থা রয়েছে। এই হোটেলের প্রতি রুম ভাড়া ২৮০০ থেকে ৩০০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

হোটেল ডালাস রাজশাহী

হোটেল ডালাস রাজশাহী শহরে ভালো মানের হোটেল গুলোর মধ্যে অন্যতম। তবে এই হোটেলে রাতে থাকার ব্যবস্থা ও রুম ভাড়া অনেক সাশ্রয়ী মূল্যে পাওয়া যায়। এখানকার হোটেল ভাড়া ৩২০০ থেকে ৩৫০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে। তবে বছরে রুম ভাড়ার উপর ছাড় রয়েছে। তাই বুকিং করার সময় আগে জেনে নিবেন ডিসকাউন্টের সুযোগ রয়েছে কিনা। 

পদ্মা আবাসিক হোটেল

পদ্মা আবাসিক হোটেলে আপনি সাধারণ মানের বা এর থেকে উন্নত মানের দুই ধরনের রুম পাবেন। আপনার খরচ ও চাহিদার উপর আপনি ভাড়া নিতে পারবেন। এখানে সাধারণ মানের রুমগুলো ২০০০ থেকে ৩০০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে। আর উন্নত মানের রুম ৫০০০ থেকে এর উপরেও পেয়ে যাবেন।

ইসলামি আবাসিক হোটেল

ইসলামি আবাসিক হোটেলে একদমই কম খরচে আবাসিক হোটেল সুযোগ-সুবিধা পাওয়া সম্ভব। রুম প্রতি ভাড়া ২৫০০ টাকা হয়ে থাকে। তবে বিভিন্ন ডিসকাউন্ট বা ছাড়ের কারণে এর থেকেও কমে রুম ভাড়া পাওয়া যায়।

হোটেল সেঞ্চুরি

রাজশাহীর প্রাণকেন্দ্রে ও রাবির পাশে আরো একটি হোটেল, হোটেল সেঞ্চুরি। সব ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার মাধ্যমে এবং সুযোগ সুবিধা প্রদান করার মাধ্যমে কম টাকায় সব ধরনের সুবিধা সহ এই হোটেলের বুকিং মানি ৩০০০ টাকা থেকে ৩২০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে। তবে বেশ কয়েকবার বছরে ছাড় পাওয়া যায়। 

আবাসিক হোটেলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ইচ্ছুক পরীক্ষার্থীদের চাপ 

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এর পাশে খোঁজার আসল উদ্দেশ্য রাবির ভর্তি পরীক্ষার আগে হোটেল রুম এ পরীক্ষার কয়েকদিন থাকার ব্যবস্থা বা সুবিধা এর জন্য। মূলত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার জন্য সারা বাংলাদেশ থেকেই শিক্ষার্থীরা আসেন পরীক্ষা দিতে। কিন্তু এত শিক্ষার্থী থাকার জায়গার অভাবে বিড়ম্বণায় পড়েন। 

কারণ রাজশাহীর এক জরিপে দেখা গিয়েছে যে ছোট বড় সব মিলিয়ে ৬৫ এর মত হোটেল রয়েছে। আর এসব হোটেলে মোট ১৫০০ থেকে ১৮০০ মানুষ থাকার সুযোগ করা সম্ভব। কিন্তু ভর্তি পরীক্ষার সময় এর চাহিদা হয়ে যায় দ্বিগুণ।  

অনেকেই তখন পর্যাপ্ত হোটেল রুম পান না। এবং আগে থেকেই সব রুম বুকড হয়ে যায়। আর পরীক্ষা সাধারণত তিন চার দিন ধরে হওয়ার কারণে রাজশাহীর বাইরে থেকে আশা পরীক্ষার্থীরা সহজে যেতেও পারেন না। তাই এটা মূলত এক ধরনের ভোগান্তি পরীক্ষার্থীদের জন্য। 

আর সবাই চান কম টাকায় থাকা-খাওয়া এবং নিরাপত্তার সব ধরনের সুযোগ সুবিধা। এদিকে রাজশাহীতে মেস রয়েছে প্রায় ৫০০০ এর মত। কিন্তু মেসে শিক্ষার্থী ছাড়া অন্য কেউ বা অভিভাবক থাকার সুবিধা না থাকায় এই সমস্যার জন্য মেস কোন ধরনের সাহায্য করতে সক্ষম নয়।

রাবিতে কম খরচে খাওয়ার ব্যবস্থা 

আবাসিক হোটেলের তথ্য বিষয়ক হোটেল ও আবাসন সুবিধা থাকা সত্ত্বেও অনেকের খাওয়ার ব্যবস্থা বা কম টাকায় খাওয়ার সুবিধা কোথায় আছে এ ব্যাপারে ধারণা কম থাকে। তাই থাকার ব্যবস্থা করতে পারলেও খাওয়ার বিষয়ে অনেকে সন্দিহান থাকেন। তাই বলা যায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আশে পাশেই দুপুরে এবং রাতে খাওয়ার জন্য অনেক ধরনের হোটেল রয়েছে। 

এসব হোটেল থেকে প্রতিদিনই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছেলেমেয়েরা কম টাকায় খেয়ে আসছেন।  এরকম একটি হোটেল হচ্ছে হোটেল মাদারীপুর। তাদের ২০ টাকাই দুপুর ও রাতের খাবারের আইটেম রয়েছে। এই খাবার ব্যবস্থা অনেক সুপরিচিত। এবং যুগ যুগ ধরে এই হোটেলটি এই খাবার সার্ভিস চালিয়ে যাচ্ছে। 

দুর্মূল্যের এই বাজারে এত কম টাকায় খাবার পাওয়া খুবই আশ্চর্যের বিষয়। আবার এখানে ভাত, ডিম, বিভিন্ন ধরনের ভর্তা এবং আনলিমিটেড ডাল পাওয়া যায়। এছাড়া আপনি চাইলেও মাছ, মাংস, শাকসবজি সহ অন্য আইটেম নিতে পারবেন। 

এরকম অনেক হোটেলই রয়েছে রাবির আশেপাশে। যেহেতু পড়াশুনা বা পরীক্ষা দেওয়ার জন্য রাবির আশেপাশে হোটেলে ওঠা জরুরী তাই খাবার ব্যবস্থার সম্পর্কেও খোঁজখবর নেওয়া দরকার। এজন্য রাবির স্টেশন রোড বা আশেপাশে হাঁটলেই আপনি অনেক সহজলভ্য খাবারের দোকান পাবেন।

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে বিষয়ে কিছু প্রশ্ন 

প্রশ্নঃ রাজশাহীর আবাসিক হোটেলের নাম্বার কিভাবে পাব? 

উত্তরঃ রাজশাহীর আবাসিক হোটেল গুলোর নাম্বার আমরা আমাদের আর্টিকেলে উল্লেখ করে দিয়েছি। আশা করি আপনারা ওইসব নাম্বারে ফোন দিলে আপনাদের কাঙ্খিত হোটেলে কথা বলে দেখতে পারবেন। 

প্রশ্নঃ ইসলামি আবাসিক হোটেল রাজশাহীর ভাড়া কত?

উত্তরঃ ইসলামী আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশেই। এর ভাড়া প্রতি রুম প্রায় ২৫০০ টাকার মত। 

প্রশ্নঃ হোটেল সেঞ্চুরিতে সুবিধা কেমন? 

উত্তরঃ হোটেল সেঞ্চুরিতে বেশ কিছু সুযোগ সুবিধা রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য যে আপনি সম্পূর্ণ নিরাপত্তা এবং এয়ারকন্ডিশন বা এলইডি এবং সকালের নাস্তা ও গিজার সহ সব ধরনের সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন। 

প্রশ্নঃ রাজশাহীতে কম খরচে আবাসিক হোটেল কি কি? 

উত্তরঃ কম খরচে আবাসিক হোটেলের মধ্যে রয়েছে ইসলামি আবাসিক হোটেল, আর এইচ স্টুডেন্ট হোটেল, নুপুর লেডিস হোটেল। এছাড়াও আরো বেশ কয়েক ধরনের হোটেল পাওয়া যায়। 

প্রশ্নঃ সর্বনিম্ন ভাড়া রাজশাহী হোটেলে কত হতে পারে?

উত্তরঃ রাজশাহীর হোটেল গুলোতে সবচেয়ে কম ভাড়া ১২০০ টাকা ও সর্বোচ্চ ভাড়া ১৫০০ টাকা  হয়ে থাকে। তবে গুণগতমান ও সময় ভেদে এর পরিবর্তন হতে পারে। 

রাজশাহী শহরের হোটেলের তথ্য  

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পাশে যে সব রয়েছে সেগুলো ছাড়াও রাজশাহী শহরে আরো বিভিন্ন ধরনের কম টাকার হোটেল থেকে বেশি টাকার বা ফোর স্টার মানের হোটেলও পাওয়া যায়। আমরা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশে যেসব হোটেল দেখলাম এগুলো ছাড়াও আরো যেসব হোটেল রাজশাহীতে রয়েছে সেগুলোর তালিকা নিচে দেওয়া হল।

  • হোটেল সুকর্ণ এন্টারপ্রাইজ
  • হোটেল মুন
  • পর্যটন মোটেল
  • হোটেল হক ইন্টারন্যাশনাল
  • হক' স ইন
  • হোটেল মিড টাউন
  • হোটেল হাসনা হেনা আবাসিক
  • হোটেল আর - আরাফাহ
  • হোটেল আনজুম
  • হোটেল সূর্যমুখী
  • হোটেল ড্রিম হ্যাভেন
  • হোটেল এক্স
  • রয়েল রাজ ইন্টারন্যাশনাল
  • হোটেল সিটি প্লাস
  • হোটেল গ্রীন সিটি ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেল
  • হোটেল স্টার ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেল
  • হোটেল হক্স ইন
  • হোটেল সিটি
  • হোটেল রাডার
  • হোটেল এশিয়া
  • সাহেব বাজার আবাসিক হোটেল
  • ওয়ে হোম হোটেল
  • আকতার গেষ্ট হাউজ
  • রাজশাহী মেট্রোপলিটন হোটেল

আমাদের উল্লেখিত হোটেলগুলো খুবই নিরাপদ এবং এই হোটেল গুলো অসামাজিক কাজকর্মে লিপ্ত নয়। অবশ্যই হোটেল নির্বাচনে নিরাপত্তা বিষয়ে সাবধান থাকা জরুরী। কিন্তু এই হোটেল গুলোতে আপনি সব ধরনের নিরাপত্তা সহ ভালো মানের সুবিধা পেয়ে যাবেন। 

আর যারা রাজশাহী শহরে নতুন আসছেন তাদের জন্য এই তথ্য খুবই উপকারী। আমরা নিচে এসব হোটেলের রুম ভাড়া সম্পর্ক একটি ধারণা দিচ্ছি এবং যোগাযোগ নাম্বার গুলো দিয়ে দিব যেন আপনারা প্রয়োজনে আগে থেকেই যোগাযোগ করে হোটেলগুলো বুকিং দিয়ে রাখতে পারেন।

রাজশাহীতে আবাসিক হোটেলের রুম ভাড়া 

রবিতে ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রতিবছরই রাজশাহীতে অনেক শিক্ষার্থী অভিভাবক সহ দুই থেকে তিন দিনের জন্য রাজশাহী শহরে ভিড় করে থাকেন। এ সময় রাজশাহী শহরের হোটেল ও আবাসন এর বুকিং এর চাহিদা দ্বিগুণ হয়ে যায়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে হোটেল মালিকরা মানুষের চাহিদা পূরণ করতে পারেন না। এ সময় তাই অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীরা খুবই বিপাকে পড়ে যান। 

রাজশাহী শহরের এই পরীক্ষার্থীদের ছাড়াও রাজশাহী শহরে ঘুরতে আসার জন্য অনেক হোটেল রয়েছে যেখানে পরিবারসহ থাকার ব্যবস্থা করা হয়। রাতে আবাসিক হোটেলে থাকার সুব্যবস্থা করার জন্য আবাসিক হোটেলের তথ্য সংবলিত থাকা খাওয়ার যেসব ব্যবস্থা রয়েছে সে ব্যাপারে ধারণা থাকা জরুরী।

আমরা রাজশাহী হোটেল গুলোর জরিপ করলে দেখতে পারি মোটামুটি সাধারণ হোটেল থেকে ফোর স্টার হোটেল পর্যন্ত রুম ভাড়া ২৫০০ থেকে শুরু করে ৫০০০ পর্যন্ত হয়ে থাকে। তবে সময়ের সাথে সাথে এ ভাড়া কম বা বেশি হয়ে যায়। তাই বিভিন্ন মানের হোটেল থাকার কারণে আপনাদের সুবিধা অনুযায়ী যেকোনো ধরনের হোটেলে আপনি রাজশাহী শহরে আসার আগেই রুম বুক করে রাখবেন। 

আবাসিক হোটেলের নাম্বার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে

আমরা ইতোমধ্যেই আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পাশে বা রাজশাহীতে কি কি ধরনের আবাসিক হোটেল রয়েছে এবং এদের তালিকা সহ ভাড়ার সম্বলিত কম টাকার হোটেল থেকে বেশি টাকার হোটেল সব ধরনেরই তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আমরা অনেকেই অনেক দূর থেকেই রাজশাহীতে আসি বিশেষ করে পড়াশোনার জন্য বাব ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার উদ্দেশ্যে। 

আবাসিক হোটেলের নাম্বার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে

এই সময় শিক্ষার্থীদের জন্য একদম কম খরচে আবাসিক হোটেল পাওয়া খুবই চ্যালেঞ্জিং একটা বিষয়। তাই আপনাদের সুবিধার্থে যত বেশি আমরা তথ্য দিতে পারি তা আমরা চেষ্টা করেছি। অচেনা একটি শহরে শিক্ষার্থী বা অভিভাবকরা যখন আসেন তারা খুবই ভেঙে পড়েন থাকার ব্যবস্থা সমস্যার জন্য। এ সময় নিরাপত্তা সহ আদর্শ থাকার ব্যবস্থা কোথায় আছে তা অনেকেই জানেন না। 

আবার হোটেল বা হোটেল সম্পর্কে ধারণা থাকলেও যোগাযোগ নাম্বার নেই। কিন্তু যদি যোগাযোগ করে আগে থেকেই হোটেল বুক করে রাখতে পারেন তবে আপনার জন্যই মঙ্গল। তাই আমরা নিচে বেশ কিছু হোটেল নাম্বার শেয়ার করছি।

  • আরএইচ স্টুডেন্ট হোস্টেলঃ ০১৭২৭৯০৭০২৭
  • স্বর্ণপুরি হোটেলঃ  ০১৭৩১৫৬৪১০১
  • হোটেল সেঞ্চুরিঃ ০১৯৩৭২৫৬৬৫১
  • ইসলামী আবাসিক হোটেলঃ ০৭২১৮১১৩৭০
  • হোটেল সুকর্ণ এন্টারপ্রাইজঃ ০১৭১১৮১১০১
  • হোটেল মুনঃ ০১৭১৯০৮৮২৬০
  • পর্যটন মোটেলঃ ০১৯৯১১৩৯৩৯৪
  • হোটেল হক ইন্টারন্যাশনালঃ ০১৭১১০৬৬৫৯৭
  • হক' স ইনঃ ০১৭১৫৬০৫১৫৭
  • হোটেল মিড টাউনঃ ৮৮০৭২১৭৭৪৯৬১
  • হোটেল হাসনা হেনা আবাসিকঃ ০১৭৫০৮৭৭৯৩৩
  • হোটেল আর - আরাফাহঃ ০১৭৪৭৬৪৯২৮৫
  • হোটেল আনজুমঃ ০১৭১০৯৭৫৯১৪
  • হোটেল সূর্যমুখীঃ ০১৭৩৪৯৬৬৯০৫
  • হোটেল ড্রিম হ্যাভেনঃ ০১৭১৬৯৭৮৮৬৬
  • হোটেল এক্সঃ ০১৮৪৪০০৪২০০
  • রয়েল রাজ ইন্টারন্যাশনালঃ ০১৩২১২৩১৭৫৬
  • হোটেল সিটি প্লাসঃ ০১৭৪৩-৯০৬০০৬
  • হোটেল গ্রীন সিটি ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেলঃ ০১৭৯১৭১১১৩৩
  • হোটেল স্টার ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেলঃ ০১৭৮৪৪০০৬০০
  • হোটেল হক্স ইনঃ ০১৭-১৫৬০৫১৫৭
  • হোটেল রাডারঃ ০৭২১৭৭২৮৩৪
  • হোটেল এশিয়াঃ ০১৭৮০-৫৬৫৯১৯
  • ওয়ে হোম হোটেলঃ ০১৭৫৬৮৫৮৯৪৩
  • গ্রীন গার্ডেন গেস্ট হাউজঃ ০১৬১৬২৪৪৫৫৫
  • আকতার গেষ্ট হাউজঃ ০১৮৩১৮২৩৩৯৩
  • হোটেল রাডারঃ ০৭-২১৭৭২৮৩৪

উপরের নাম্বার দেওয়া হোটেল গুলোতে আপনি রুম বুকিং দিয়ে খুব সহজেই রাজশাহী শহরে আসতে পারেন। তবে রুম বুকিং দেওয়ার আগে অবশ্যই আপনাকে এই হোটেলের সুযোগ সুবিধা এবং তথ্যগুলো আগে জেনে রাখা জরুরী। এছাড়াও ছাড়ের বিষয় রয়েছে কিনা এই বিষয়টিও জেনে রাখবেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ইচ্ছুক পরীক্ষার্থীদের থাকার ব্যবস্থা

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পাশে অনেকগুলো রয়েছে। এক পরিসংখ্যানে দেখা গিয়েছে যে প্রায় ৬৫ টি আবাসিক হোটেল বিশ্ববিদ্যালয় আশেপাশেই রয়েছে। কিন্তু এই আবাসিক হোটেল গুলিতে পর্যাপ্ত পরিমাণ থাকার ব্যবস্থা নেই। বিশেষত যখন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়। 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ইচ্ছুক পরীক্ষার্থীদের থাকার ব্যবস্থা করার জন্য প্রতিবছরই বিশ্ববিদ্যালয় কমিটি বিভিন্ন ধরনের মিটিং করে থাকেন। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হোটেল ছাত্রাবাস এ অভিভাবক সহ ছাত্রদের থাকার ব্যবস্থা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করে দেওয়ার জন্য তারা প্রতিবছর উদ্যোগ নিয়ে থাকেন।

যা খুবই প্রশংসার সমতুল্য। প্রতিবছরই প্রায় ৭০% ছাত্রদের এবং তাদের অভিভাবকদের শহরের হোটেল ছাত্রাবাস বা বিশ্ববিদ্যালয় থাকার জন্য সুযোগ করে দেয়া হয়। হোটেল গুলো যেন কম ভাড়া নেয় এবং থাকার ব্যবস্থা ও সুযোগ বাড়িয়ে দেয় সেই ব্যবস্থা করা হয়। 

এবং ছাত্রাবাসগুলোতে অভিভাবকসহ শিক্ষার্থীদের থাকার ব্যবস্থা বিনা খরচে করে দেওয়া হয়। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের বড় বড় কক্ষ যেমন অডিটোরিয়াম বা কমন  রুমগুলোতে গন রুমের ব্যবস্থা করা হয়।

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে একদম কম খরচে বিষয়ে আরো কিছু প্রশ্ন

প্রশ্নঃ ফোর স্টার মানের আবাসিক হোটেলের ভাড়া কত? 

উত্তরঃ রাজশাহীতে ফোরস্টার মানের আবাসিক হোটেলের ভাড়া ৪ হাজার থেকে ১৬ হাজার পর্যন্ত হয়ে থাকে। 

প্রশ্নঃ রাজশাহীতে সেরা হোটেল কোনটি? 

উত্তরঃ রাজশাহীর সেরা হোটেল হচ্ছে গ্রান্ড রিভারভিউ হোটেল ও হোটেল রয়েল রাজ। 

প্রশ্নঃ গ্রান্ড রিভারভিউ হোটেলের ভাড়া কত? 

উত্তরঃ গ্রান্ড রিভর ভিউ হোটেলের ভাড়া ৩৫ ডলার থেকে ১৮০ ডলার পর্যন্ত হয়ে থাকে। 

প্রশ্নঃ রয়েল রাজ ইন্টারন্যাশনাল হোটেলের ভাড়া কত? 

উত্তরঃ রয়েল রাজ হোটেলের ভাড়া ৪৫ থেকে ১৩৫ ডলার পর্যন্ত হয়ে থাকে।   

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে বিষয়ে লেখক এর মন্তব্য

আবাসিক হোটেল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে তালিকা গুলো জানতে পেরে আশা করে অবশ্যই আপনারা অনেক উপকৃত হয়েছেন। অনেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার জন্য এসে অথৈ জলে পড়ে যান থাকা খাওয়া বিষয়ে। তাই কোথায় কোথায় কেমন খরচে কেমন পরিবেশে কোন ধরনের হোটেল ব্যবস্থা রয়েছে আমরা এখানে সব ধরনের তথ্যই দেওয়ার চেষ্টা করেছি।  

যেহেতু ভর্তি ইচ্ছুক পরীক্ষার্থীরা একদম কম খরচে আবাসিক হোটেল চান। তাই তাদের সুবিধার কথা মাথায় রেখেই কম খরচে এবং ভালো সুবিধা যুক্ত কোন ধরনের হোটেল রয়েছে সে সব তথ্যই আমরা আপনাদের সামনে উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছি। আগে থেকে হোটেল বুকিং করে এবং অফার নিয়ে খুব সহজেই নিশ্চিন্তে আপনারা রাজশাহী শহর ঘুরে যেতে পারেন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url