মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে এবং এর সাইড ইফেক্ট

আমরা অনেকেই মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে এ ব্যাপারে জানতে খুবই আগ্রহী। মেলাট্রিন ক্রিমের ব্যাপারে অনেকেই খুব একটা ধারণা রাখেন না। তাই আজ আমরা মেলাট্রিন ক্রিম এর সাইড ইফেক্ট সম্পর্কেও জানব।

মেলাট্রিন-ক্রিম-কতদিন-ব্যবহার-করতে-হবে

আমরা ত্বকের উপকারের জন্য মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করে থাকি। মেলাট্রিন ক্রিম আমাদের জন্য কতটা উপকারী, সাইড ইফেক্ট, ব্যবহার, অপকারিতা সম্পর্কে আমরা অনেকেই ধারণা রাখি না। আজকে এই আর্টিকেলটা পড়লে অবশ্যই মেলাট্রিন ক্রিম এর ব্যবহার সম্পর্কে আমরা জানতে পারবো।

এই পোস্ট থেকে আপনি যা যা জানতে পারবেনঃ

মেলাট্রিন ক্রিম এর ব্যবহার করার সময়সীমা

আমরা অনেকে মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার সম্পর্কে অবগত না। মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে এ ব্যাপারে আমরা সবাই সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগে থাকি। এর কারণে ব্যবহারের নিয়ম ঠিকমত না মানলে এই ক্রিম ব্যবহারের উপরিযুক্ত সমাধান পাওয়া যায় না। ফলে বিভিন্ন রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। তাই এ ক্রিম ব্যবহারের সময়সূচি সম্পর্কে জানা জরুরী।

ঠিকমতো ব্যবহার না করলে এলার্জি জাতীয় সমস্যার সমাধান হয় না। তাই অবশ্যই এবং সঠিক দিন অনুযায়ী ব্যবহার করতে হবে। আমাদের সবার শরীরে এলার্জি রয়েছে। কিন্তু যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাদের অ্যালার্জির উপসর্গ বেশি চোখে পড়ে। আবার যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি তাদের অ্যালার্জি তেমন একটা প্রকাশিত হয় না।

তাই এলার্জি জাতীয় সমস্যা বা অন্য কোন সমস্যা সমাধানের জন্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে হবে।এজন্য বিভিন্ন রকম কার্যকরী এ্যালোপ্যাথি ঔষধ চিকিৎসকরা দিয়ে থাকেন।  আবার কিছু ভেষজ ঔষধ ও রয়েছে যেগুলা ব্যবহার করার জন্য শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেকটা বেড়ে যায়।

আরো পড়ুনঃ কাঁচা শিমুল মূল খাওয়ার উপকারিতা ও শিমুল মূলের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

আর এল টি ছাড়াও এসব সমস্যা সবচেয়ে ভালো একটি সাধারণ ওষুধ হচ্ছে মেলাট্রিন। যা ক্রিম ফর্মে থাকে। এবং সেটা শরীরের উপরের চর্মরোগ জাতীয় সমস্যা সমাধানের জন্য ব্যবহার করা হয়।অথবা এলার্জি জাতীয় সমস্যার জন্য যে ধরনের দাগগুলো দেখা দেয় তার প্রতিরোধ করে। এজন্যই মেলাট্রিন কতদিন ব্যবহার করতে হবে সে ব্যাপারে আমাদের সবারই জানতে হবে।

কতদিন ব্যবহার করতে হবে সে সম্পর্কে জানতে প্রথমেই ডাক্তারের পরামর্শ মত চলা উচিত। এক্ষেত্রে ব্যবহারবিধি সাধারণত এলার্জির কত মাত্রায় আছে সেটার উপর নির্ভর করেই ১৫ থেকে ৩০ দিন ব্যবহার করার সময় সীমা ধরে দেওয়া হয়। কিন্তু যদি সমস্যারও বেশি থাকে তাহলে আরো বেশি দিন পর্যন্ত এটি ব্যবহার করার নির্দেশনা দেয়া হয়ে থাকে।

এজন্য কাছের সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন রকমহাসপাতাল বা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স  রয়েছে। তাই অবশ্যই সকলকে নিকটস্থ চিকিৎসালয় থেকে মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করার নিয়ম এবং চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চলার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। কারণ এতে প্রতিরোধ করা যাবে এবং কোন প্রভাব থেকেও বেঁচে যাবেন। 

মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে এবং মেলাট্রিন ক্রিম এর সাইড ইফেক্ট সম্পর্কে সবচেয়ে বেশি প্রশ্ন পাওয়া যায়। তাই আমাদের আগে জানতে হবে মেলাট্রিন ক্রিমের সাইড ইফেক্ট কেমন হতে পারে। সব ধরনের ওষুধেরই কমবেশি সাইড ইফেক্ট দেখা যায়। নিচে মেলাট্রিন ক্রিমের কেমন সাইড ইফেক্ট হতে পারে সে ব্যাপারে আলোচনা করা হলো।

মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করার ফলে কিছু ব্যবহারকারী বলে থাকেন যে তাদের অ্যালার্জি সমস্যা বেড়ে গেছে। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় তাদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা এতটা মাত্রায় বৃদ্ধি পেয়েছে। এবং অনেক ক্ষেত্রে কারোর হাঁপানি বা শ্বাসকষ্ট সমস্যা না থাকলেও নতুন ভাবে আক্রমণ করে। শরীরের বিভিন্ন জায়গায় এই ওষুধটা ব্যবহার করার ফলে লাল রঙের ড্যাশ দেখা দেয়।

অনেকের ক্ষেত্রে দেখা যায় চামড়া ফুলে ওঠে।  প্রচুর ব্যথা করে।  ত্বক রুক্ষ হয়ে যায়।  ত্বকের নির্দিষ্ট জায়গায় চুলকানি বেড়ে যায়। অনেকের গলায় প্রদাহ দেখা দেয়।  গলা ফুলে যায়। এবং আরো অনেক সমস্যা দেখা দিতে পারে। যেসব কিনা শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকারক। তাই এত সাইড ইফেক্ট থাকার জন্য আপনাদের অবশ্যই বুঝতে হবে যে অবশ্যই  চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত এই ক্রিম  ব্যবহার করা উচিত না।

এছাড়াও আরও কিছু সমস্যা রয়েছে। যেমন,

  • ত্বক খুবই রুক্ষ হয়ে যায় 
  • ত্বকের নমনীয়তা নষ্ট হয় 
  • কালার পরিবর্তন হয়ে যায়

মেলাট্রিন ক্রিম এর বিশেষ উপাদান

মেলাট্রিন ক্রিম সাধারণত একটি ক্রিম যা এন্টিহিস্টামিন জাতীয় একটি ঔষধ। সাধারণত বিভিন্ন রকম চর্ম রোগের সমাধানের জন্য মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়। এজন্য চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চর্ম রোগের উপসর্গ থাকলে মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করতে হবে।

এই ক্রিমে সাধারণত তিনটি বিশেষ উপাদান থাকে ফ্লুসিনোলোন এসিটোনাইড, হাইড্রোকুইনোন এবং ট্রিটিনয়িন। এই উপাদান গুলোর একসাথেই এরকম চর্ম রোগ সমাধানের জন্য কার্যকর। এই উপাদান গুলো ব্যবহার করার জন্য শরীরের উপর ভিন্ন ধরনের কালো দাগ দূর  করতে সাহায্য করা হয়। 

এখানে কালো দাগ ছাড়াও শরীরের বাইরের ত্বকের বিভিন্ন রকম সমস্যার জন্য এই ওষুধটি খুবই কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে। হাইড্রোকুইনোন মেস্তা জাতীয় সমস্যার সমাধান করে,  এবং  টাইরোসিন মেলালিন  সংশ্লেষণে বাধা দেয়। এবং ক্যারাটোলাইটিক হিসেবে ট্রিটিনয়িন রয়েছে এই ক্রিমে। 

মেলাট্রিন ক্রিম কিভাবে ব্যবহার করতে হয়

মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে এ ব্যাপারে আমরা অবশেষে জানতে পেরেছি। কিন্তু আমরা এখনও ক্লিয়ার না যে মেলাট্রিন ক্রিম এর ব্যবহারটা কিসের জন্য। আমাদের আগে এই ক্রিম ব্যবহার কেন করতে হবে সে ব্যাপারে ধারণা থাকতে হবে। যেন আমরা সঠিকভাবে এই ক্রিমটি ব্যবহার  করতে পারি এবং উপকার পাই।

মেলাট্রিন-ক্রিম-কিভাবে-ব্যবহার-করতে-হয়

সাধারণত বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মানুষ এই ক্রিমটি ব্যবহার করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ও শরীরে বিভিন্ন জায়গায় কালো দাগ দূর করার জন্য। তাই তিনটি বিষয় সম্পর্কে জানলে ক্রিমটির বেপারে আমাদের একটা সাধারণ জ্ঞান জাতীয় তথ্য তৈরি হবে।

  • এই ক্রিমটি একটি প্যাকেটে আসে যেটির ক্যাপাসিটি মোটামুটি ৩০ গ্রাম। 
  • এটা এক ধরনের ক্রিম জাতীয় পণ্য। এটা কোন ট্যাবলেট নয়। 
  • এটা ১২ বছরের উপরে যেকোনো পুরুষ বা নারী  ব্যবহার করতে পারবেন।

মেলাট্রিন ক্রিম প্রয়োগের পদ্ধতি

মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে সে ব্যাপারে জানার আগে আমাদের অবশ্যই মেলাট্রিন ক্রিম এর ব্যবহারের পদ্ধতি সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে। যদি আপনারা মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করেন তাহলে অবশ্যই ত্বকের উপকার না হওয়া পর্যন্ত এটি ব্যবহার করে যেতে হবে। কিন্তু সমস্যাগুলো যেন আবার ফিরে না আসে সেটা নিশ্চিত করার জন্য প্রতিদিন রাতে ব্যবহার চালিয়ে যেতে হবে।

এই ক্রিম ব্যবহারের আগে অবশ্যই ত্বক পরিষ্কার করে ধুয়ে নিতে হবে, প্রয়োজনে ফেসওয়াশ বা সাবান দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করতে হবে। এরপর কাপড় দিয়ে মুখ মুছে ফেলতে হবে। কিন্তু এই ক্রিমটি ব্যবহার করার আগে অবশ্যই আপনাকে মাথায় রাখতে হবে যেন ত্বক হালকা ভেজা থাকে। এবং সেই হালকা ভেজা ত্বকের উপরই ক্রিমটি প্রয়োগ করা জরুরী।

  • এ ক্রিম অবশ্যই ঘুমানোর আগে কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে ব্যবহার করতে হবে। 
  • ঘাড়ে কোন কালো দাগ থাকলে দরকার হলে এই ক্রিমটি সেখানেও ব্যাবহার করা যাবে।  
  • এই ক্রিম ব্যবহার করার পর হালকাভাবে একটু ঘষে নিতে হবে।
  • এই ক্রিম দিনের বেলা ব্যবহার করলে প্রথমে সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করে নিতে হবে। 
  • এছাড়াও বাইরে বের হলে মুখে আরো কাপড় পড়তে হবে। 
  • সকালবেলা সূর্যের আলো যেন সরাসরি মুখে না পড়ে সে ব্যবস্থা করতে হবে। 
  • এবং দিনের বেলা সানস্ক্রিন ছাড়াও মশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।
এসব পদ্ধতি অবলম্বন করে অবশ্যই ক্রিমটি ব্যবহার করতে হবে। এবং নিয়ম অনুযায়ী ব্যবহার করলে খুব তাড়াতাড়ি সমাধান পেয়ে যাবেন।

মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহারে পরবর্তী নির্দেশনা

এই মেলাট্রিন ক্রিম  আসলে নাইট ক্রিম জাতীয় একটি ক্রিম। এ কারণে এই মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করার ফলে শরীরে উপরের ত্বকের পুরুত্ব কমে যায়। যার কারণে এই মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করার ফলে বিশেষ নির্দেশনা অবলম্বন করতে হবে কিছু বিষয়ে। যা ত্বকের কোনো ক্ষতি হাত থেকে রক্ষা করবে।

এই ক্রিমটি মুখের প্রচন্ড মেস্তার সমস্যার সমাধান দেয়। কিন্তু এক্ষেত্রে সূর্য রশ্মি খুবই খারাপ একটা ভূমিকা পালন করে। সূর্য রশির সংস্পর্শে আসলে ত্বকের বিভিন্ন রকম সমস্যা হতে পারে। ত্বকের প্রাথমিক সমস্যা থেকেও আরো বেশি কঠিন তরো হয়। তাই সূর্যের আলোর প্রতিরোধ করা জরুরী।  

এক্ষেত্রে সকাল বেলা এই ক্রিম ব্যবহার না করাই উপযুক্ত। এবং অবশ্যই সকালবেলা সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করতে হবে।  এতে যেন ৩০ প্লাস প্লাস এসপিএফ থাকে সেটাও খেয়াল রাখতে হবে। এবং নিয়মিত ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। যাতে উপরের ত্বকের একটা প্রাচীর তৈরি হয়। সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি জানো সরাসরি ত্বকের উপর না পরে।

মেলাট্রিন ক্রিম এর কাজ

এতক্ষণ আমরা ম্যারাথন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে সম্পর্কে জেনেছি। এই মুহূর্তে আমাদের জানতে হবে ম্যারাথন ক্রিমের কাজগুলো কি। কেন এবং কোন সময় আমরা এই ক্রিমটি ব্যবহার করব।নিচে সে বিষয়ে আলোচনা করা হলো।

প্রথমত মেলাট্রিন ক্রিম কোন শরীরের কোন জায়গায় জ্বালাপোড়া হলে সেটা কমিয়ে দেয়। এলার্জির জন্য তৈরি কৃত কোন ত্বকের সমস্যা হলে সেই সমস্যাগুলো সমাধান করে। যেমন ত্বকের লাল লাল ভাব, ত্বকের উপর চুলকানি, ঘামাচির মত এলাচের সমস্যা দেখা দিলে।

চুলকানির সমস্যা সমাধান করে এই ক্রিমটি। এছাড়াও ঘামাচির জন্য বা এলার্জি জাতীয় সমস্যা সমাধানের জন্য প্রধান কাজ এই ক্রিমটিতে রয়েছে। কারণ এই সমস্যাগুলো এলার্জির কারণে হয়ে থাকে এবং কোনো কারো যদি হাঁচি-কাশি সমস্যা হয় সে ক্ষেত্রে এই সমস্যাগুলো দেখা দেয়। আর এই সমস্যাগুলোর সমাধান ক্রিমের উপাদান গুলোর মধ্যে বিদ্যমান। 

যে এলার্জি গুলো ঘামাচি জাতীয় সেগুলোর সমাধান এই ক্রিমটি করে থাকে। কারণ এখানে এমন উপাদান থাকে যারা ঘামাচি সমস্যার সমাধানে সাহায্য করে। এবং শরীরের যেইসব জায়গাগুলাতেই সমস্যাগুলো হয় সেই সব জায়গার ত্বকের উপাদান গুলো পুনরুদ্ধার করে।  

শরীরে আঘাত প্রাপ্ত ক্ষত স্থানগুলো সারাতে বিশেষ সাহায্য প্রদান করে। এবং ক্ষত জায়গা গুলোতে নতুন কোষ গঠন করতে সাহায্য করে।

সুন্দর ত্বকের জন্য মেলাট্রিন ক্রিম এর ব্যবহার

আপনারা অবশ্যই জানতে পেরেছেন এতক্ষণে যে মেলাট্রিন ক্রিম কি কি কারণে ব্যবহার হয়ে থাকে। এবং আপনারা এটাও বুঝতে পেরেছেন বিশেষ করে শরীরের উপরের ত্বকের কোন সমস্যা সমাধানেই এটি প্রধানত ব্যবহার করা হয়। এমনকি সৌন্দর্য বর্ধনেও মানুষ এই ক্রিমটি অনেকে ব্যবহার করে থাকেন। মুখের ত্বকের বিশেষ উপকার এই ক্রিমটি করে থাকে। 

সুন্দর-ত্বকের-জন্য-মেলাট্রিন-ক্রিম-এর-ব্যবহার

নিচে সৌন্দর্য বর্ধনে মেলাট্রিন ক্রিম  এর ব্যবহার নিয়ে আলোচনা করা হলোঃ

মেলাট্রিন ক্রিম মুখের ত্বকের জন্য খুবই উল্ল্যখ যোগ্য ভূমিকা পালন করে। ব্রণ মুখের ত্বকের সৌন্দর্য নষ্ট করতে খুবই কার্যকরী। এ ব্রণ নিয়ে সবাই কমবেশি খুবই চিন্তায় থাকেন। প্রত্যেকদিন স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে ব্রণের জন্য অনেকেই পিছিয়ে যান। তাদের ক্ষেত্রে সাহায্যের জন্য মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার খুবই কার্যকরী। 

অনেকের মুখের ত্বকের উজ্জ্বলতা কম হওয়ার জন্য মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করতে আগ্রহী হন। মেলাট্রিন ক্রিম মৃত কোষ গুলো সারিয়ে উজ্জ্বল কোষ গুলো বের করতে সাহায্য করে।   

আবার মেলাট্রিন ক্রিম এর সবচেয়ে বড় উপকার হয় মেছতা জাতীয় সমস্যা সমাধানে। বেশিরভাগ মানুষই যাদের মেছতার সমস্যা রয়েছে তারা সমাধান পান না। মেছতা. একটি দীর্ঘমেয়াদী সমস্যা যার সমাধান সহজে হয় না। কিন্তু মেছতা যদি নিয়মিত ব্যবহার করা যায় তবে মেছতা অবশ্যই কমে যাবে। এবং রেগুলার ব্যবহার করতে হবে। কারণ এই ক্রিম ব্যবহার করা বন্ধ করে দিলে মেসতা আবার পুনর্জীবিত হয়ে উঠবে।

আরও পরুনঃ চুলকানিতে নিম পাতার ব্যবহার - নিম পাতার ঔষধি গুণাবলি

মেলাট্রিন ক্রিমের মূল্য ২০২৪

মেলাট্রিন ক্রিমের মূল্য সঠিক বলা অসম্ভব। কারণ এক এক ধরনের ফার্মেসিতে এক ধরনের দাম দিয়ে থাকে।  আবার আমদানির বিভিন্ন ধরনের জন্য ও মূল্যের পরিবর্তন দেখা দেয়।  কিন্তু যদি গড়ে হিসাব করা হয় তাহলে দেখা যায় বাজারে এর দাম ১৮০ টাকার মত। আবার অনেক জায়গায় অনলাইনেও এই ক্রিম বিক্রি হয়। 

মূলত এটা দেখার বিষয় যে যেখান থেকে কিনবেন না কেন হলমার্ক যেন থাকে। নকল পণ্য থেকে সাবধান থাকা জরুরী। এতে মেলাট্রিন ক্রিম এর সাইড ইফেক্ট আরো বেশি প্রভাবিত হয়। তাই ভালো হয় ফার্মাসিতে গিয়ে সঠিকভাবে বিচার করে সংগ্রহ করা। 

মেলাট্রিন ক্রিম এর কোম্পানি

মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে এবং মেলাটিন ক্রিম এর সাইড ইফেক্ট যেন না হয় সেজন্য আমাদের সঠিক ক্রিমটি খুঁজে বের করতে হবে। সেক্ষেত্রে জানতে হবে যে এই ক্রিমটি কোন কোম্পানি তৈরি করে থাকেন।

তাই আমাদের এই সমস্যার জন্য আমরা বলতে পারি, খুবই গর্ব করে যে, এই ক্রিমটি বাংলাদেশের একটি উচ্চমানের ওষুধ তৈরি কৃত প্রতিষ্ঠান এই ওষুধটি তৈরি করে থাকেন। এবং এই প্রতিষ্ঠানটির নাম হচ্ছে ZISKA PHARMACEUTICALS LIMITED

মেলাট্রিন ক্রিম এর ব্যবহারে সতর্কতা

গর্ভাবস্থায় এই ক্রিমটা অপকারী ভূমিকা রয়েছে। গর্ভের শিশুর শারীরিক ক্ষতি সাধন হতে পারে এই ক্রিমটা ব্যবহার করলে। ভ্রুনের  নানা রকম সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই এই সময়ে এই ওষুধটার ব্যবহার না করাই জরুরী। এই ক্রিমের ট্ৰিটিনয়িন জাতীয় উপাদান আছে যা কিনা গর্ভাবস্থার জন্য খুবই  খারাপ। এর প্রতিক্রিয়া ব্যাপক। 

এছাড়াও স্তন্যদানকারী মায়েদের এই ক্রিমটা ব্যবহার করা যাবে না। এ ক্রিম থেকে বিশেষ উপাদান রয়েছে যা কিনা মাতৃদুগ্ধের মধ্যে চলে যায় যা পরবর্তীতে শিশুর জন্য ক্ষতিকর প্রভাব বয়ে আনে। তাই এই সময়েও ব্যবহারের বিষয়ে সাবধান থাকতে হবে।

মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহারে চিকিৎসকের উপদেশ

মেলাট্রিন ব্যবহারে মুখের চামড়া ওঠে কেনএতে কোন সমস্যা হবেকেউ ব্যবহার করে থাকলে বলেন?

হ্যা চামড়া উঠলে সমস্যা হবে।মুখের সুন্দর করতে গেলে ক্ষতি হবে।চামড়া উঠলে সুন্দর দেখাবে না।আপনি বেটনোভেট সি ক্রিম ব্যবহার করুন।

মেলাট্রিন ক্রিম কি শুধু মেয়েদের জন্য?

এটি ছেলেরাও ব্যাবহার করতে পারে। এটি মেছতা ও ব্রণের দাগ দূর করতে ব্যাবহার করা হয়।

মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করে কেউ কি কোনো ফল পেয়েছেন প্লিজ একটু বলেন?

হ্যা মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহারে ব্রনের দাগ সারাতে ভাল ফল দেয়।

আমার মুখে চামরায় প্রচুর কালো দাগ হয়েছে।এখন কোন ক্রিমটা ব্যাবহার করব?

কালো দাগ অনেক কারণে হয়ে থাকে। যদি মেসতাজনিত কারণে আপনার কালো দাগ হয়ে থাকে তবে মেলাট্রিন ক্রিমটি ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তুু অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবহার করাই শ্রেয়। ধন্যবাদ।

মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে সে ব্যাপারে লেখকের মন্তব্য

মেলাট্রিন ক্রিম কতদিন ব্যবহার করতে হবে এবং এই মেলাট্রিন ক্রিম এর সাইড ইফেক্ট ছাড়াও আমরা অনেক ধরনের ইনফরমেশন এই আর্টিকেল থেকে জানলাম। এবং মেলাট্রিন ক্রিম জাতীয় কোন সমস্যার সমাধান এখান থেকেই আমরা পরবর্তীতে পাব। মেলাট্রিন ক্রিম একটি খুবই উপকারী একটি ক্রিম। 

মেলাট্রিন ক্রিম যেমন খুবই সহজেই পাওয়া যায়। এটার ব্যবহার ও সহজ। এজন্য সহজ এবং সঠিকভাবে এটার ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। তাহলে সবাই এই মেলাট্রিন ক্রিম ব্যবহার করে উপকার পাবেন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url